বান্দরবান পার্ব্যত্য জেলা পরিষদ পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়
মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ১৫ জানুয়ারি ২০১৯

চেয়ারম্যান ও সদস্যবৃন্দের সংক্ষিপ্ত জীবনকথা

মাননীয় চেয়ারম্যানের সংক্ষিপ্ত জীবন বৃত্তান্ত

ক্য শৈ হ্লাচেয়ারম্যানবান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদ

           জনাব ক্য শৈ হ্লা ২৫ ডিসেম্বর ১৯৬৩ সালে বান্দরবানের রোয়াংছড়ি উপজেলার আলেক্ষ্যং মৌজার আমতলী পাড়ায় জন্মগ্রহণ করেন। তবে বর্তমানে উজানী পাড়া, বান্দরবান সদরে স্থায়ীভাবে বসবাস করছেন। তাঁর পিতার নাম মৃতঃ মেঅং মাস্টার ও মাতার নাম ওয়াংপাইখয়। তাঁর দুই পুত্র ও এক কন্যা সন্তান রয়েছে। তিনি বান্দরবান শহরের ডনবস্কো সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষা জীবন শুরু করেন। ১৯৮২ সালে শ্রীপুর হরনদ্বীপ উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এসএসসি ও ১৯৮৪ সালে চট্টগ্রামের রাঙ্গুনিয়ার ইমাম গাজ্জালী কলেজ থেকে এইচএসসি পাশ করেন।

ক্রীড়া/সামাজিক/সাংস্কৃতিক কর্মকান্ডে অংশগ্রহণ:

ক্র:নং

সংস্থার নাম ও ঠিকানা

পদের নাম ও সময়কাল

০১.

ঈগল স্পোর্টিং ক্লাব, বান্দরবান সদর

প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি

০২.

জুডো ও কারাতে ক্লাব, বান্দরবান সদর

প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি

০৩.

রয়েল শিল্পী গোষ্ঠী

প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি

০৪.

জেলা ক্রীড়া সংস্থা, বান্দরবান

বর্তমানে সদস্য

০৫.

বাংলাদেশ কারাতে ফেডারেশন

প্রাক্তন সহ-সভাপতি(১) বর্তমানে সেক্রেটারী

০৬.

ফেডারেশন অব বাংলাদেশ চেম্বারস অব কর্মাস এ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি(এফবিসিসিআই)

কো-চেয়ারম্যান(ডেভেলাপমেন্ট এ্যান্ড রিসার্চ)

০৭.

চেম্বার অব কমার্স, বান্দরবান

প্রেসিডেন্ট

০৮.

দৈনিক সাঙ্গু

সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতি

০৯.

ঈগল উড লিমিটেড, বান্দরবান

চেয়ারম্যান

১০.


১১.

সেন্টার ফর হিউম্যান ডেভেলপমেন্ট


বান্দরবান বিশ্ববিদ্যালয়

প্রতিষ্ঠাতা


কো-চেয়ারম্যান

বিশেষ কোন পুরষ্কার/সম্মাননা পেয়ে থাকলে তার বিবরণ:

ক্র:নং

পুরষ্কার/সম্মননার নাম ও প্রাপ্তির সন

পুরষ্কার ও সম্মননার সংক্ষিপ্ত বিবরণ

০১.

ইউনিয়ন পরিষদ, উপজেলা পরিষদ ও জেলা পরিষদ ক্যাটাগরিতে ২০০১ ও ২০০৯ সালে বৃক্ষরোপনে প্রধানমন্ত্রীর জাতীয় পুরষ্কার

বৃক্ষরোপনে বিশেষ অবদানের স্বীকৃতি স্বরূপ দু’বার প্রথম পুরষ্কার অর্জন

০২.

২০১২ সালে ধরিত্রী বাংলাদেশ কর্তৃক মানব সেবা সম্মাননা

মানবিক কাজে অবদানের জন্য

০৩.

বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট এ্যাওয়ার্ড ২০১৪, বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি কর্তৃক

মানবিক কাজে অবদানের জন্য

রাজনৈতিক জীবনের গুরুত্বপূর্ণ কার্যাবলী:

) বান্দরবান জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি

) বর্তমানে বান্দরবান জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি

) ০৫/০৮/১৯৯৭ হতে ০৬/০৯/২০০০ পযন্ত বান্দরবান পাবত্য জেলা পরিষদের সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।

১১/০৮/২০০০ হতে ১৬/০২/২০০২ পযর্ন্ত বান্দরবান পাবত্য জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। ২৫/০৫/২০০৯ হতে ২৫/০৩/২০১৫ পযর্ন্ত দ্বিতীয় মেয়াদের জন্য এবং ২৫/০৩/২০১৫ হতে অদ্যাবধি তৃতীয় মেয়াদের জন্য এ পরিষদের চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করছেন।

ভ্রমণ: জনাব ক্য শৈ হ্লা যুক্তরাষ্ট্র, ইতালী, চীন, জাপান, অস্ট্রেলিয়া,  ভিয়েতনাম, থাইল্যান্ড, নেপাল, ভারত, মায়ানমার, ইন্দোনেশিয়া, নিউজিল্যান্ড ও মালয়েশিয়ায় ভ্রমণ করেন।

ভবিষ্যৎ পরিকল্পনাপ্রাকৃতিক সৌন্দর্য্যে ভরপুর বান্দরবান গড়ে তুলতে চান যাতে করে আগামী প্রজন্ম সুন্দরভাবে জীবন যাপন করতে পারে। সুশিক্ষিত সমাজ গড়ে তুলতে পারে।

বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদ সদস্যবৃন্দঃ

জনাব ক্যসাপ্রু,  সদস্যবান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদ

তিনি ২৯/১১/১৯৬৭ সালে জন্ম গ্রহণ করেন।তাঁর পিতার নাম: মৃত: মংহ্লাচিং এবং মাতার নাম মৃত: হ্ননখয় মারমা।তাঁর দুই পুত্র ও এক কন্যা সন্তান রয়েছে। তিনি রাঙ্গুনিয়া আদর্শ বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ১৯৮৪ সালে এসএসসি, রাঙ্গুনীয়া মহাবিদ্যালয় থেকে ১৯৮৬ সালে এইচএসসি এবং একই শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে ১৯৮৮ সালে স্নাতক ডিগ্রী লাভ করেন।

রাজনৈতিক জীবনের গুরুত্বপূর্ণ কার্যাবলী:

ক) প্রাক্তন সহ-সভাপতি, বান্দরবান জেলা যুবলীগ(১৯৯১-১৯৯৫)

খ) প্রাক্তন সাধারণ সম্পাদক, বান্দরবান জেলা শ্রমিক লীগ(১৯৯৬-২০০১)

গ) প্রাক্তন সভাপতি, বান্দরবান সদর উপজেলা আওয়ামী লীগ(২০০১-২০০৯)

ঘ) বর্তমানে বান্দরবান জেলা আওয়ামী লীগের সাংগনিক সম্পাদক

ঙ) ২৫/০৫/২০০৯ সাল হতে ২৫/০৩/২০১৫ পযর্ন্ত বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদের সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন এবং ২৫/০৩/২০১৫ হতে পুণরায় সরকার কর্তৃক সদস্য হিসেবে নিয়োগ পেয়ে দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছেন।

বিশেষ কোন পুরষ্কার/সম্মাননা পেয়ে থাকলে তার বিবরণ:

ক্র:নং

পুরষ্কার/সম্মননার নাম ও প্রাপ্তির সন

০১.

জানুয়ারি ১৯৮২ সালে বাংলাদেশ শিশু একাডেমী কর্তৃক আয়োজিত জাতীয় শিশু পুরস্কার প্রতিযোগিতায় ক্রীড়া ও শরীর চর্চা বিষয়ক খ বিভাগে উচ্চ লম্ফ বিষয়ে তৃতীয় স্থান অধিকার করেন।

০২.

১৯৮৩ সালে জেলা জুনিয়র এ্যাথলেটিকস প্রতিযোগিতায় উচ্চ লম্ফ বিষয়ে ৩য় স্থান অধিকার

০৩.

১৯৮৪ সালে রাঙ্গুনিয়া আদর্শ বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয় বার্ষিক ক্রীড়া অনুষ্ঠানে বড় ছেলেদের উচ্চ লম্ফ প্রতিযোগিতায় ২য় স্থান অধিকার।

 ভবিষ্যৎ পরিকল্পনাডিজিটাল বান্দরবান গড়ে তোলা।

জনাব কাঞ্চন জয় তঞ্চঙ্গ্যাঁসদস্যবান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদ

০১/০৮/১৯৭০ সালে বোয়াংছড়ি উপজেলার বিজয় পাড়ায় জন্ম গ্রহণ করেন। তাঁর পিতার নাম: মৃত: বিজয় চন্দ্র তঞ্চঙ্গ্যাঁ এবং মাতার নাম: মৃত: ভানুমতি তঞ্চঙ্গ্যাঁ।তাঁর দুই কন্যা ও এক পুত্র রয়েছে। তিনি রাঙ্গুনিয়া উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এসএসসি ও রাঙ্গুনিয়া কলেজ থেকে এইচএসসি পাশ করেন।

রাজনৈতিক জীবনের গুরুত্বপূর্ণ কার্যাবলী:

ক) বর্তমানে রোয়াংছড়ি উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি।

খ) ১৯৮৫ সাল থেকে ১৯৯০ সাল পযর্ন্ত বাংলাদেশ ছাত্র লীগ এর নির্বাহী সদস্য।

গ) ১৯২১ সাল থেকে জেলা আওয়ামী লীগের কার্য-নির্বাহী সদস্য

ঘ) ১৯৯১ সাল হতে ১৯৯৭ সাল পযর্ন্ত আলেক্ষ্যং ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।

ঙ) ২০১১ সাল হতে ২৫/০৩/২০১৫ পযর্ন্ত বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদের সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন এবং ২৫/০৩/২০১৫ হতে পুণরায় সরকার কর্তৃক সদস্য হিসেবে নিয়োগ পেয়ে দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছেন।

ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা: সুন্দর একটি জাতি গঠনে ভূমিকা রাখতে চান।

 

জনাব থোয়াইচাহ্লা মার্মাসদস্যবান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদ

তিনি ২৫/০৩/২০১৫ হতে দ্বিতীয়বারের মতো বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদের সদস্য হিসেবে নিয়োগপ্রাপ্ত হন এবং দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছেন।তিনি আলীকদম উপজেলা অংকাই পাড়ায় জন্ম গ্রহণ করেন।

জনাব মোমোজাম্মেল হক বাহাদুরসদস্যবান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদ।

তিনি ২৪/০২/২০১৬ হতে প্রথমবারের মতো বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদের সদস্য হিসেবে নিয়োগপ্রাপ্ত হন এবং দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছেন। জনাব বাহাদুর বান্দরবান সরকারি কলেজ থেকে স্নাতক ডিগ্রী লাভ করেন। তিনি বান্দরবান পৌর এলাকায় জন্ম গ্রহণ করেন।তাঁর ০২ কন্যা ও ০১ পুত্র সন্তান রয়েছে।

জনাব লক্ষীপদ দাসসদস্যবান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদ।

তিনি ২৫/০৩/২০১৫ হতে প্রথমবারের মতো বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদের সদস্য হিসেবে নিয়োগপ্রাপ্ত হন এবং দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছেন।তিনি বান্দরবান সদরে বাজার এলাকায় জন্মগ্রহণ করেন। তিনি দুই কন্যা সন্তানের জনক।

জনাব মোমোস্তফা জামালসদস্যবান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদ।

তিনি ২৪/০২/২০১৬ হতে প্রথমবারের মতো বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদের সদস্য হিসেবে নিয়োগপ্রাপ্ত হন এবং দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছেন।তিনি বান্দরবান পার্বত্য জেলার লামা উপজেলায় জন্ম গ্রহণ করেন।

 

জনাব থোয়াইহ্লামংসদস্যবান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদ

তিনি ২৫/০৩/২০১৫ হতে প্রথমবারের মতো বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদের সদস্য হিসেবে নিয়োগপ্রাপ্ত হন এবং দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছেন।তিনি থানছি উপজেলার সন্তান।

জনাব ম্রাসা খিয়াংসদস্যবান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদ।

তিনি ২৫/০৩/২০১৫ হতে প্রথমবারের মতো বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদের সদস্য হিসেবে নিয়োগপ্রাপ্ত হন এবং দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছেন।তিনি গুংগুরু পাড়া, কুহালং ইউনিয়ন, বান্দরবান সদর উপজেলায় জন্মগ্রহণ করেন।

জনাব ফিলিপ ত্রিপুরাসদস্যবা্ন্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদ।

তিনি ২৫/০৩/২০১৫ হতে প্রথমবারের মতো বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদের সদস্য হিসেবে নিয়োগপ্রাপ্ত হন এবং দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছেন। পিতার নাম: বতিরাম ত্রিপুরা।তিনি দুই পুত্র ও দুই কন্যা সন্তানের জনক। তিনি বান্দরবান সদর উপজেলার  কালাঘাটা ত্রিপুরা পাড়ায় জন্ম গ্রহণ করেন।

জনাব সিংইয়ং ম্রোসদস্যবান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদ।

তিনি ২৫/০৩/২০১৫ হতে দ্বিতীয়বারের মতো বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদের সদস্য হিসেবে নিয়োগপ্রাপ্ত হন এবং দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছেন।তাঁর পিতার নাম মৃত: চাংঙাক ম্রো। তিনি দুই সন্তানের জনক।তিনি বান্দরবান সদর উপজেলার নোয়া পাড়ায় জন্ম গ্রহণ করেন।

জনাব ক্যনে ওয়ান চাকসদস্যবান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদ।

তিনি ০৬/০৮/২০১৮ হতে প্রথমবারের মতো বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদের সদস্য হিসেবে নিয়োগপ্রাপ্ত হন এবং দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছেন।তাঁর পিতার নাম মৃত থোয়া্চইঅংগ্য চাক্ এবং মাতা চাক্। তিনি এক পুত্র  সন্তানের জনক। তিনি নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার মধ্যম চাক্ পাড়ায় জন্ম গ্রহণ করেন।

 

মিসেস ফাতেমা পারুলসদস্যবান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদ।

তিনি ২৫/০৩/২০১৫ হতে প্রথমবারের মতো বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদের সদস্য হিসেবে নিয়োগপ্রাপ্ত হন এবং দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছেন।তাঁর পিতার নাম মৃত: মো: নুরুল হক(বীর মুক্তিযোদ্ধা)। তিনি দুই পুত্র ও এক কন্যা সন্তানের জননী।তিনি লামা উপজেলার পশ্চিম রাজবাড়ীতে জন্মগ্রহণ করেন।

 

মিসেস তিংতিংম্যাসদস্যবান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদ।

তিনি ২৫/০৩/২০১৫ হতে প্রথমবারের মতো বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদের সদস্য হিসেবে নিয়োগপ্রাপ্ত হন এবং দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছেন। তাঁর পিতার নাম: অংথোয়াইপ্রু।তিনি এক কন্যা সন্তানের জননী। তিনি বান্দরবান পৌর এলাকার উজানী পাড়ায় জন্মগ্রহণ করেন।

 

জনাব জুয়েল বমসদস্যবান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদ।

তিনি ২৫/০৩/২০১৫ হতে দ্বিতীয়বারের মতো বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদের সদস্য হিসেবে নিয়োগপ্রাপ্ত হন এবং দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছেন। তাঁর পিতার নাম: থাংচুল বম। তিনি দুই কন্যা ও এক পুত্র সন্তানের জনক। তিনি রুমা উপজেলার বেথেল পাড়ায় জন্ম গ্রহণ করেন।

 


Share with :

Facebook Facebook